দুই দফায় সংঘবদ্ধ ধর্ষণের শিকার একজন নারী।

কক্সবাজার সমুদ্রসৈকতের লাবণী পয়েন্টে স্বামীর সাথে এক অপরিচিত যুবকের ধাক্কা লাগা নিয়ে কথা কাটাকাটির জের ধরে দুই দফায় সংঘবদ্ধ ধর্ষণের শিকার হন একজন নারী। তিনি ছুটিতে স্বামী-সন্তানসহ কক্সবাজারে বেড়াতে গিয়েছিলেন। ঘটনাটি কাউকে জানালে স্বামী ও সন্তানকে হত্যা করার হুমকিও দেয়া হয়।
হোটেলের সিসিটিভি ক্যামেরার ফুটেজ দেখে তিনজন ধর্ষক থেকে দুইজনকে পুলিশ শনাক্ত করতে সক্ষম হয় এবং তৃতীয়জন শনাক্তের প্রচেষ্টা চলছে। এদের মধ্যে একজন সম্প্রতি জেল থেকে ছাড়া পেয়েছে এবং ছিনতাই-মাদকসহ একাধিক মামলার আসামি।
স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তীতে; যখন দেশ একটু একটু করে সামনের দিকে এগিয়ে যাচ্ছে, পুরো বিশ্বের সামনে স্বতন্ত্র একটি পরিচয়ে পরিচিত হওয়ার চেষ্টা করছে, সেই সময়ে এমন বর্বরতা চোখে আঙুল দিয়ে দেখিয়ে দেয় আমরা জাতি হিসাবে এখনো কতটা অনিরাপদ।
ন্যাক্কারজনক এই ঘটনায় KIN– অত্যন্ত ক্ষুব্ধ এবং একইসাথে তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাচ্ছে। KIN– এই ঘটনার সাথে জড়িত অপরাধীদের দ্রুততম সময়ের মধ্যে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি নিশ্চিতের দাবি জানাচ্ছে এবং ভবিষ্যতে যেনো এই ধরণের ঘৃণিত ঘটনার পুনরাবৃত্তি না হয় সেজন্য আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সজাগ দৃষ্টি কামনা করছে।
Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin

Leave a Comment

Your email address will not be published.